করোনাভাইরাস: একদিনে বিশ্বজুড়ে ৩২৫৮ জনের মৃত্যু


Admin   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ১৫ জুন, ২০২০

বিশ্বজুড়ে তাণ্ডব চালিয়েই যাচ্ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। প্রতিদিনই বহু মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে। মারাও যাচ্ছে। ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে নতুন করে ১ লাখ ২৩ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এসময় মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ২৫৮ জনের। সবমিলিয়ে বিশ্বে আক্রান্ত হয়েছে ৭৯ লাখ ৮৪ হাজারের বেশি মানুষ। আর বৈশ্বিক মৃত্যুর সংখ্যা ৪ লাখ ৩৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সর্বাধিক মৃত্যু হয়েছে ব্রাজিলে। এসময় দেশটিতে নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ৫৯৮ জনের। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ১৭ হাজারের বেশি মানুষ। সবমিলিয়ে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৪৩ হাজার ৩৮৯ জনের। আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লাখ ৬৭ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।
বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে মেক্সিকোতে। দেশটিতে নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ৪২৪ জনের। সবমিলিয়ে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ১৬ হাজার ৮৭২ জনের। এছাড়া দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ৪৯৪ জন। এ পর্যন্ত মেক্সিকোয় আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৪২ হাজারের বেশি মানুষ।
একদিনে বৈশ্বিক মৃত্যুর দিক দিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ৩২৬ জনের। সবমিলিয়ে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ১৭ হাজার ৮৫৩ জনের। আর একদিনে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ২০ হাজার মানুষ। সবমিলিয়ে দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ২১ লাখ ৬২ হাজারের বেশি মানুষ।
এদিকে বৈশ্বিক মৃত্যুর দিকে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পর সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৪১ হাজার ৬৯৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মারা গেছে আরও ৩৬ জন। এছাড়া এসময় আক্রান্ত হয়েছে ১ হাজার ৫১৪ জন। সবমিলিয়ে দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ২ লাখ ৯৫ হাজারের বেশি মানুষ।
তবে বিশ্বে সর্বাধিক সংক্রমিত দেশের তালিকায় যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পরই রাশিয়ার অবস্থান। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা যথাক্রমে ৮ হাজার ৮৩৫ ও ১১৯ জন। সবমিলিয়ে রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৫ লাখ ২৮ হাজারের বেশি মানুষ। আর মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৯৪৮ জন।
অন্যদিকে ইতালিতে করোনার সংক্রমণ কমে এলেও আক্রান্ত ও মৃত্যু অব্যাহত রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে মারা গেছে ৪৪ জন। ফলে সবমিলিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৪ হাজার ৩৪৫ জন। এছাড়া একইসময় আক্রান্ত হয়েছে ৩৩৮। তাই মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ২ লাখ ৩৭ হাজার।