কাপাসিয়াতে মিথ্যা মামলা দিয়ে প্রবাসীর পরিবারকে হয়রানির অভিযোগ


Admin   প্রকাশিত হয়েছেঃ   ২৩ জানুয়ারী, ২০২১

গাজীপুর প্রতিনিধি: গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলায় মিথ্যা মামলা দিয়ে শাহ আলম চৌধুরী খোকনসহ একই পরিবারের চারজনকে হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বিষয়টি নিয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। কাপাসিয়া উপজেলার মৈশন গ্রামের শাহ আলম চৌধুরী খোকন ও শামীম লাকিল চৌধুরী রোকন দুই ভাই।

তারা দুইজনেই প্রবাসী, গত ১৬/০১/১৫ইং তারিখ পাশের হাইলজোর গ্রামের রফিকুল ইসলাম মোল্লা মেয়ে তানজিয়া আলম সাথী সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ শাহ আলম চৌধুরী খোকন। বেশকিছু সংসার ভালোই চলছিল। তার মাঝে তাদের দুইজনের সংসারে একটি কন্যা সন্তান হয় যার বর্তমান বয়স ৫বছর। কয়েক বছর যাবার পর গত ১৪/০১/২০ পারিবারিক সমস্যা কারনে তাদের মাঝে বিবাহ বিচ্ছেদ(তালাক)হয়।

গত ১৭/১২/২০ তারিখ তাদের কন্যা সন্তান সারিয়া চৌধুরী(৫) তার পিতা শাহ আলম চৌধুরী খোকন বাড়িতে বেড়াতে আসলে। ২০/১২/২০তারিখ সকাল ১১টায় তানজিয়া আলম সাথী তার পিতা রফিকুল ইসলাম মোল্লা ও মোঃ রাজিবসহ তার তিনজন শাহ আলম চৌধুরী খোকনের বাড়িতে আসে সারিয়া চৌধুরী(৫) নেওয়ার জন্য। কিন্তু সারিয়া চৌধুরী(৫) তাদের সাথে যেতে না চাইলে পূর্বের রেশারেশি জের ধরে তানজিয়া আলম সাথী শাহ আলম চৌধুরী খোকন পরিবারের সকলের উদ্দেশ্য করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এছাড়াও সুযোগ পেলে মেরে ফেলা ও জানমালের মারাত্মক ক্ষয়ক্ষতি তাদের হয়রানী করবে বলে জানান। শাহ আলম চৌধুরী খোকন ও শামীম লাকিল চৌধুরী রোকন এর নিজ পরিবারের নিরাপত্তার জন্য গত ২২/১২/২০ কাপাসিয়া থানায় সাধারণ ডায়রী করেন যার নং ৯৫৪।

চারদিন পর ২৬/১২/২০ তারিখ শ্লীলতাহানী মারধরসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগ এনে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন মামলা দায়ের করেন তানজিয়া আলম সাথী।
এই বিষয়ে শাহ আলম চৌধুরী খোকনের মা শান্তা চৌধুরী বলেন, সাথী আক্তার আমাদের পরিবার কে নষ্ট করার লক্ষে আমাদের সবাই কে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। আর তাকে সহযোগীতা করছে কুচক্রী মহল। এবং তারা বিভিন্ন ফেইসবুক আইডি দিয়ে আমাদের পকিবারের সবার নামে অপপ্রচার চালাচ্ছে ও সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপূর্ন করতে। আমরা এই এলাকার সম্মানের বসবাস করছি। ওরা দেখতে পারছে না তাই তানজিয়া আলম সাথী তাদের সাথে মিলে এই কাজ গুলো করছে।
এলাকাবাসী জানান, এই গ্রামের মধ্যেই সবচেয়ে স্বচ্ছল পরিবার শাহ আলম চৌধুরী খোকনের পরিবার। তাদের পরিবারে অশান্তি সৃষ্টি হল তানজিয়া আলম সাথী কে বিয়ে করানো পর থেকে এর আগে ছোট খাট অনেক জামালে হয়ে আমরা শুনেছি। এছাড়া এই গুলো নিয়ে থানা জিডি করা হয়েছে। আমরা শাহ আলম চৌধুরী খোকন ও শামীম লাকিল চৌধুরী রোকন দুই ভাই কে ছোট থেকে জানি ওরা নির্দোষ । যে ঘটনা দেখিয়ে তারা মামলা দিয়েছে, আসলে এখানে এই ধরনের কোনো ঘটনাই ঘটেনি। একটি কুচক্রী মহলের ইশারায় মিথ্যা মামলা দিয়ে এই পরিবারটা কে ফাঁসিয়ে দিয়েছে তারা।

ভোক্তভোগী পরিবারের সকলের দাবী, তারা এই মিথ্যা মামলার এর প্রতিকার চাই। তারা এই ধরনের ঘটনা সম্পর্কে কিছুই জানে না।